Add more content here...
Dhaka ১০:২০ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৫ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
শিরোনামঃ
ধামরাইয়ে প্রায় এক কেজি হেরোইন সহ মাদক কারবারি গ্রেফতার রমজানের এক মাস আগেই বাড়তে শুরু করেছে নিত্যপণ্যের বাজার নারী উদ্যোক্তাদের উন্নয়নে বিশ্ব ব্যাংকের বিশেষ তহবিল চেয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা টাঙ্গাইলের সখিপুরে ছেলের হাতে বাবা খুন দৌলতপুর ধামশ্বর ইউনিয়নে রাতের আঁধারে মাটি বিক্রি,হুমকিতে ফসলি জমি চট্টগ্রাম সাতকানিয়ায় মোবাইল কোর্টের ৫০,০০০টাকা জরিমানা নাহিদ হাসান (১৬) হত্যা মামলার রহস্য উদঘাটন ও লুষ্ঠিত মোটরসাইকেল উদ্ধারসহ গ্রেফতার ০৫ আদিতমারী সমবায় সেক্টরে আলো ছড়াচ্ছেন ফজলে এলাহী মহিপুরে সাধুর ব্রিজ ভেঙে পড়ল খালে, ভোগান্তিতে পর্যটক সহ ৫ গ্রামের মানুষ গোপালগঞ্জে পতিত জমিতে মিলছে মণে মণে মাছ: প্রধানমন্ত্রী
নোটিশঃ
প্রিয়" পাঠকগণ", "শুভাকাঙ্ক্ষী" ও প্রতিনিধিদের উদ্দেশ্যে জানানো যাচ্ছে:- কিছুদিন যাবত কিছু প্রতারক চক্র দৈনিক ক্রাইম তালাশ এর নাম ব্যবহার করে প্রতিনিধি নিয়োগ ও বিভিন্ন প্রলোভন দেখিয়ে অর্থ হাতিয়ে নিচ্ছে। তার সাথে একটি সক্রিয় চক্র সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিভিন্ন গ্রুপ বিভিন্ন ভাবে "দৈনিক ক্রাইম তালাশ"কে হেয় প্রতিপন্ন করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। মনে রাখবেন "দৈনিক ক্রাইম তালাশ" এর অফিসিয়াল পেজ বা নিম্নের দুটি নাম্বার ব্যাতিত কোন রকম লেনদেনে জড়াবেন না। মোবাইল: 01867329107 হটলাইন: 01935355252

কুড়িগ্রামে গাইবান্ধার কুখ্যাত ” প্রতারক জ্বীনের বাদশাকে ” গ্রেফতার করেছে পুলিশ

  • Reporter Name
  • Update Time : ০৫:১৫:৪৪ অপরাহ্ন, বুধবার, ১১ অক্টোবর ২০২৩
  • ৭৯ Time View

এস এম নুরুল আমিন,কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি: কুড়িগ্রাম জেলার ভূরুঙ্গামারী উপজেলায় জিনের বাদশা নামের প্রতারক চক্রের গাইবান্ধার এক সদস্যকে সোনার আবরণে একটি নকল মূর্তিসহ আটক করা হয়েছে।

আটক ব‍্যক্তির নাম আব্দুর রশীদ (৩৫)। সে গাইবান্দার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার বাড়িয়া গ্রামের রাজা মিয়ার ছেলে।

১০ই অক্টোবর মঙ্গলবার রাতে উপজেলার চর ভূরুঙ্গামারী ইউনিয়নের নতুনহাট বাজার এলাকায় একটি হাফেজিয়া মাদ্রাসার সামনে থেকে ওই ব‍্যক্তিকে আটক করে আব্দুল হাকিম নামের এক গ্রাম পুলিশ।
পরে তার নিকট থেকে সোনার আবরণে একটি নকল মূর্তি উদ্ধার করে ইউনিয়ন পরিষদে জমা দেয়।
চর ভুরুঙ্গামারী ইউপি চেয়ারম্যান মানিক উদ্দিন জানান,আটক ব‍্যক্তি প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানায় নতুন হাট এলাকার আকবর আলীর স্ত্রী ফয়েরজান কে বিভিন্ন সময় মুঠোফোনে কল দিয়ে জিনের বাদশাহ পরিচয় দিয়ে কথা বলতো।

ভুক্তভোগীর পুত্র উপজেলার চর ভূরুঙ্গামারী ইউনিয়নের খয়বার আলী জানান গত প্রায় ০৪ দিন যাবত আমার মায়ের মোবাইল ফোনে ফোন করে আল্লাহর অলী দরবেশ পরিচয় দিয়ে সালাম- কালাম করে বলে মা তোর ভাগ্যে বহু ধন-রত্ন দেখা যাইতেছে তুই বড় ভাগ্যবান। তুই ছোট বেলা থেকে অনেক পরিশ্রম করতেছিস। আমাকে তোর কাছে আল্লাহ তার দরবার থেকে পাঠাইয়া দিয়ে তোর প্রাপ্য ধন-সম্পদ (০৭ রাজার ধন) আল্লাহর নির্দেশে ৭০০ জন জ্বীন পাহাড়া দিতেছে এই ধন-সম্পদ তুই যদি পাইতে চাস, তাহলে তোকে আল্লাহর ওয়াস্তে মসজিদে কোরআন শরীফ, জায়নামাজ, টুপি দান করতে হবে।
এইভাবে উক্ত আল্লাহর অলী, দরবশে সেজে উক্ত ব্যক্তি আমার মায়ের সাথে প্রতিনিয়ত গভীর রাতে মোবাইলে কথা বলতে থাকে এবং আমার মাকে মূল্যবান ধন-সম্পদ পাওয়ার লোভ-লালসা দেখাতে থাকে। তখন আমার মা সেই আল্লাহর অলী, দরবেশ হিসেবে দাবি করা ব্যক্তিকে জানায় যে কোরআন শরীফ, জায়নামায, টুপি আমি কোথায় দিবো। তখন আল্লাহর অলী দরবেশ আমার মাকে জানায় যে, বিকাশে ১০০০/- (এক হাজার) টাকা পাঠাইয়া দিলে কোরআন শরীফ, জায়নামাজ, টুপি তোর নামে আল্লাহর দরবারে পৌঁছিয়ে দিবো। আমার মা ধর্ম ভিরু ও গ্রামের সহজ সরল বৃদ্ধ মহিলা হওয়ায় উক্ত আসামীর কথায় তার প্রতি আকৃষ্ট হয়ে সরল বিশ্বাসে উক্ত ঘটনার ০১ দিন পরে আমার মা গুপ্ত ধন-সম্পদ প্রাপ্তির আশায় উক্ত আসামীর দেওয়া বিকাশ নম্বরে স্থানীয় এজেন্টের বিকাশ নাম্বার থেকে পর্যায়ক্রমে ০২ বার ৪০০০/- (চার হাজার) টাকা বিকাশ করে। আল্লাহর অলী দরবেশ সেজে উক্ত প্রতারক আসামী আমার মাকে আরো বলে যে, মা তুই গুপ্ত ধন-সম্পদ পাইতে চাইলে আল্লাহকে খুশি করার জন্য কিছু র্স্বণের গহণা দিতে হবে আমার মাকে আরো বলে যে, একটি মাটির খালি পাতিলে চাল রাখিয়া একটি ঢাকনা সহ সাদা কাপড় দ্বারা বেধে তোর ঘরের গোপন জায়গায় রাখে দে। মা তুই ও তোর স্বামী জায়নামাজের উপর নফল নামাজ আদায় কর। উক্ত পাতিল আমি না বলা র্পযন্ত খুলবি না। আমার মা দরবেশের কথামত উক্ত পাতিলটি ঘররে গোপন জায়গায় রেখে দেয়। এরপর দরবশ আমার মাকে ভূরুঙ্গামারী থানাধীন চর ভূরুঙ্গামারী ইউনিয়নে নতুন হাট বাজারের ঈদগা মাঠ সংলগ্ন মাদ্রাসার মাঠে গাছে নিচে গহনাপত্র রুমালে বেধে রাখতে বলে এবং পিছনে তাকাতে নিষেধ করে। তাকালে আমার মায়ের অমঙ্গল হইবে মর্মে ভয়ভীতি দেখায়। আমার মা তাহার কথামত গুপ্ত ধন-সম্পদ পাওয়ার আশায় গত ১০ অক্টোবর ২০২৩ তারখি সন্ধ্যা আনুমানিক ০৬.০০ ঘটিকার সময় উক্ত স্থানে যায়।

উক্ত স্থানের আশেপাশে উক্ত ব্যক্তি সন্দেহজনক ভাবে ঘোরাফেরা করায় পরবর্তীতে গ্রাম পুলিশসহ কয়েক জন লোকের নিকট উক্ত ঘোরাফেরা সন্দেহ জনক মনে হইলে স্থানীয় আরো কয়েক জনকে সঙ্গে নিয়ে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে সে তার নাম ঠিকানা একেক সময় একেক ঠিকানা বলে। পরবর্তীতে ভূরুঙ্গামারী থানা পুলিশ বিষয়টি সম্পর্কে অবগত হয়ে তাৎক্ষণিকভাবে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে মোঃ আঃ রশিদ (৪০) কে গ্রেফতার ও তার হেফাজত থেকে ০১ টি র্স্বণ রংয়ের পিতলের মূর্তি উদ্ধার করে। মূর্তি সম্পর্কে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ করলে জানা যায় যে, ভিকটিম মোছাঃ খয়ের জান (৬৮) কে র্স্বণের রংয়ের উক্ত পিতলের লক্ষি মূর্তিটি দেখিয়ে র্স্বনের মুর্তি হিসাবে প্রতারণার কাজে ব্যবহার করে টাকা হাতিয়ে নেওয়ার জন্য উক্ত জ্বীনের বাদশা গাইবান্ধা জেলার গোবিন্দগঞ্জ থানা হতে চর ভূরুঙ্গামারী এসেছিল।

ভূরুঙ্গামারী থানার অফিসার ইনচার্জ রুহুল আমিন বলেন কথিত জিনের বাদশাহ কে গ্রেফতার করে তার বিরুদ্ধে প্রতারণার মামলা দায়ের করে বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Popular Post

বাংলাদেশি it কোম্পানি

ধামরাইয়ে প্রায় এক কেজি হেরোইন সহ মাদক কারবারি গ্রেফতার

x

কুড়িগ্রামে গাইবান্ধার কুখ্যাত ” প্রতারক জ্বীনের বাদশাকে ” গ্রেফতার করেছে পুলিশ

Update Time : ০৫:১৫:৪৪ অপরাহ্ন, বুধবার, ১১ অক্টোবর ২০২৩

এস এম নুরুল আমিন,কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি: কুড়িগ্রাম জেলার ভূরুঙ্গামারী উপজেলায় জিনের বাদশা নামের প্রতারক চক্রের গাইবান্ধার এক সদস্যকে সোনার আবরণে একটি নকল মূর্তিসহ আটক করা হয়েছে।

আটক ব‍্যক্তির নাম আব্দুর রশীদ (৩৫)। সে গাইবান্দার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার বাড়িয়া গ্রামের রাজা মিয়ার ছেলে।

১০ই অক্টোবর মঙ্গলবার রাতে উপজেলার চর ভূরুঙ্গামারী ইউনিয়নের নতুনহাট বাজার এলাকায় একটি হাফেজিয়া মাদ্রাসার সামনে থেকে ওই ব‍্যক্তিকে আটক করে আব্দুল হাকিম নামের এক গ্রাম পুলিশ।
পরে তার নিকট থেকে সোনার আবরণে একটি নকল মূর্তি উদ্ধার করে ইউনিয়ন পরিষদে জমা দেয়।
চর ভুরুঙ্গামারী ইউপি চেয়ারম্যান মানিক উদ্দিন জানান,আটক ব‍্যক্তি প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানায় নতুন হাট এলাকার আকবর আলীর স্ত্রী ফয়েরজান কে বিভিন্ন সময় মুঠোফোনে কল দিয়ে জিনের বাদশাহ পরিচয় দিয়ে কথা বলতো।

ভুক্তভোগীর পুত্র উপজেলার চর ভূরুঙ্গামারী ইউনিয়নের খয়বার আলী জানান গত প্রায় ০৪ দিন যাবত আমার মায়ের মোবাইল ফোনে ফোন করে আল্লাহর অলী দরবেশ পরিচয় দিয়ে সালাম- কালাম করে বলে মা তোর ভাগ্যে বহু ধন-রত্ন দেখা যাইতেছে তুই বড় ভাগ্যবান। তুই ছোট বেলা থেকে অনেক পরিশ্রম করতেছিস। আমাকে তোর কাছে আল্লাহ তার দরবার থেকে পাঠাইয়া দিয়ে তোর প্রাপ্য ধন-সম্পদ (০৭ রাজার ধন) আল্লাহর নির্দেশে ৭০০ জন জ্বীন পাহাড়া দিতেছে এই ধন-সম্পদ তুই যদি পাইতে চাস, তাহলে তোকে আল্লাহর ওয়াস্তে মসজিদে কোরআন শরীফ, জায়নামাজ, টুপি দান করতে হবে।
এইভাবে উক্ত আল্লাহর অলী, দরবশে সেজে উক্ত ব্যক্তি আমার মায়ের সাথে প্রতিনিয়ত গভীর রাতে মোবাইলে কথা বলতে থাকে এবং আমার মাকে মূল্যবান ধন-সম্পদ পাওয়ার লোভ-লালসা দেখাতে থাকে। তখন আমার মা সেই আল্লাহর অলী, দরবেশ হিসেবে দাবি করা ব্যক্তিকে জানায় যে কোরআন শরীফ, জায়নামায, টুপি আমি কোথায় দিবো। তখন আল্লাহর অলী দরবেশ আমার মাকে জানায় যে, বিকাশে ১০০০/- (এক হাজার) টাকা পাঠাইয়া দিলে কোরআন শরীফ, জায়নামাজ, টুপি তোর নামে আল্লাহর দরবারে পৌঁছিয়ে দিবো। আমার মা ধর্ম ভিরু ও গ্রামের সহজ সরল বৃদ্ধ মহিলা হওয়ায় উক্ত আসামীর কথায় তার প্রতি আকৃষ্ট হয়ে সরল বিশ্বাসে উক্ত ঘটনার ০১ দিন পরে আমার মা গুপ্ত ধন-সম্পদ প্রাপ্তির আশায় উক্ত আসামীর দেওয়া বিকাশ নম্বরে স্থানীয় এজেন্টের বিকাশ নাম্বার থেকে পর্যায়ক্রমে ০২ বার ৪০০০/- (চার হাজার) টাকা বিকাশ করে। আল্লাহর অলী দরবেশ সেজে উক্ত প্রতারক আসামী আমার মাকে আরো বলে যে, মা তুই গুপ্ত ধন-সম্পদ পাইতে চাইলে আল্লাহকে খুশি করার জন্য কিছু র্স্বণের গহণা দিতে হবে আমার মাকে আরো বলে যে, একটি মাটির খালি পাতিলে চাল রাখিয়া একটি ঢাকনা সহ সাদা কাপড় দ্বারা বেধে তোর ঘরের গোপন জায়গায় রাখে দে। মা তুই ও তোর স্বামী জায়নামাজের উপর নফল নামাজ আদায় কর। উক্ত পাতিল আমি না বলা র্পযন্ত খুলবি না। আমার মা দরবেশের কথামত উক্ত পাতিলটি ঘররে গোপন জায়গায় রেখে দেয়। এরপর দরবশ আমার মাকে ভূরুঙ্গামারী থানাধীন চর ভূরুঙ্গামারী ইউনিয়নে নতুন হাট বাজারের ঈদগা মাঠ সংলগ্ন মাদ্রাসার মাঠে গাছে নিচে গহনাপত্র রুমালে বেধে রাখতে বলে এবং পিছনে তাকাতে নিষেধ করে। তাকালে আমার মায়ের অমঙ্গল হইবে মর্মে ভয়ভীতি দেখায়। আমার মা তাহার কথামত গুপ্ত ধন-সম্পদ পাওয়ার আশায় গত ১০ অক্টোবর ২০২৩ তারখি সন্ধ্যা আনুমানিক ০৬.০০ ঘটিকার সময় উক্ত স্থানে যায়।

উক্ত স্থানের আশেপাশে উক্ত ব্যক্তি সন্দেহজনক ভাবে ঘোরাফেরা করায় পরবর্তীতে গ্রাম পুলিশসহ কয়েক জন লোকের নিকট উক্ত ঘোরাফেরা সন্দেহ জনক মনে হইলে স্থানীয় আরো কয়েক জনকে সঙ্গে নিয়ে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে সে তার নাম ঠিকানা একেক সময় একেক ঠিকানা বলে। পরবর্তীতে ভূরুঙ্গামারী থানা পুলিশ বিষয়টি সম্পর্কে অবগত হয়ে তাৎক্ষণিকভাবে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে মোঃ আঃ রশিদ (৪০) কে গ্রেফতার ও তার হেফাজত থেকে ০১ টি র্স্বণ রংয়ের পিতলের মূর্তি উদ্ধার করে। মূর্তি সম্পর্কে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ করলে জানা যায় যে, ভিকটিম মোছাঃ খয়ের জান (৬৮) কে র্স্বণের রংয়ের উক্ত পিতলের লক্ষি মূর্তিটি দেখিয়ে র্স্বনের মুর্তি হিসাবে প্রতারণার কাজে ব্যবহার করে টাকা হাতিয়ে নেওয়ার জন্য উক্ত জ্বীনের বাদশা গাইবান্ধা জেলার গোবিন্দগঞ্জ থানা হতে চর ভূরুঙ্গামারী এসেছিল।

ভূরুঙ্গামারী থানার অফিসার ইনচার্জ রুহুল আমিন বলেন কথিত জিনের বাদশাহ কে গ্রেফতার করে তার বিরুদ্ধে প্রতারণার মামলা দায়ের করে বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।