Add more content here...
Dhaka ০২:১০ অপরাহ্ন, সোমবার, ০৪ মার্চ ২০২৪, ২১ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
শিরোনামঃ
বাগেরহাটের মোড়েলগঞ্জে স্বর্ণ ছিনতাই ঘটনায় গ্রেফতার এক স্মার্ট ফোনে দাখিল পরীক্ষার প্রশ্ন ফাঁসচক্রের ২১ মাদ্রাসা  শিক্ষককে অব্যাহতি পুলিশ সপ্তাহ উপলক্ষে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত ডিসি সম্মেলন উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী বেনাপোলে কিশোরী ধর্ষণের ঘটনায় দুই যুবক গ্রেফতার দৌলতপুরে বালু উত্তোলনের জন্য একজনকে ৫০০০০/টাকা জরিমানা এবং ২ টি ড্রেজার অকেজো গোপালপুর নর্থ বেঙ্গল সুগার মিলস লিমিটেড ৯১ তম মাড়াই মৌসুমী সমাপ্তি ঘোষনা জনপ্রিয় আলেম ও বক্তা মাওলানা লুৎফর রহমানের মৃত্যু নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে সিমরাইল এলাকা হতে  (৭৯৪) বোতল) ফেনসিডিলসহ ০১ জন মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার ও প্রাইভেটকার জব্দ মানিকগঞ্জ কবরস্থান থেকে গভীর রাতে ১৮টি কঙ্কাল চুরি
নোটিশঃ
প্রিয়" পাঠকগণ", "শুভাকাঙ্ক্ষী" ও প্রতিনিধিদের উদ্দেশ্যে জানানো যাচ্ছে:- কিছুদিন যাবত কিছু প্রতারক চক্র দৈনিক ক্রাইম তালাশ এর নাম ব্যবহার করে প্রতিনিধি নিয়োগ ও বিভিন্ন প্রলোভন দেখিয়ে অর্থ হাতিয়ে নিচ্ছে। তার সাথে একটি সক্রিয় চক্র সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিভিন্ন গ্রুপ বিভিন্ন ভাবে "দৈনিক ক্রাইম তালাশ"কে হেয় প্রতিপন্ন করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। মনে রাখবেন "দৈনিক ক্রাইম তালাশ" এর অফিসিয়াল পেজ বা নিম্নের দুটি নাম্বার ব্যাতিত কোন রকম লেনদেনে জড়াবেন না। মোবাইল: 01867329107 হটলাইন: 01935355252

কী কারণে দলে ডাক পেলেন এনামুল

  • Reporter Name
  • Update Time : ১০:১১:৫৮ অপরাহ্ন, শনিবার, ১১ নভেম্বর ২০২৩
  • ৪৪ Time View

স্পোর্টস ডেস্ক:কী কারণে দলে ডাক পেলেন এনামুল? মাত্র এক ম্যাচের জন্য জরুরি বার্তা পেয়ে ওপেনার এনামুল হক বিজয় ভারতে গেলেন। অধিনায়ক সাকিব আল হাসানের বিকল্প হিসেবে বিশ্বকাপে ডাক পান তিনি। কাউকে বিকল্প হিসেবে নিয়ে আসা বা স্কোয়াডে যোগ করা মানেই যে তাকে একাদশে খেলাতে হবে, এমন নয় অবশ্যই। তবে প্রশ্নটিও উঠে যায় অবশ্যই, তা হলে এই শেষ ম্যাচটির আগে এনামুলকে আনা জরুরি ছিল কেন?

প্রশ্নটি আরও বেশি জোরালো হয়, সাকিবের বদলি হিসেবে এনামুলকে আনা হয়েছে বলে।

কোনো ক্রিকেটার চোটের কারণে ছিটকে গেলে তার জায়গায় এমনিতে বদলি কাউকে নেওয়াই রীতি। তবে খুব গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ না হলে স্রেফ একটি ম্যাচের জন্য বদলি অনেক সময় নেওয়া হয় না, বিশেষ করে দল দেশের বাইরে থাকলে। তার পরও যখন সাকিবের বদলি হিসেবে এনামুলকে নেওয়া হলো, একজন অলরাউন্ডারের বদলে আনা হলো টপ অর্ডার ব্যাটসম্যানকে, সে ক্ষেত্রে এই বার্তা পাওয়াই স্বাভাবিক যে এই ব্যাটসম্যানকে দলের একান্ত প্রয়োজন!

সেই প্রয়োজনীয়তার কথা দলের বাইরের অনেকে অনুভব করছিলেন আসলে বিশ্বকাপের আগে থেকেই। ১৫ জনের বিশ্বকাপ স্কোয়াডে কোনো বিকল্প টপঅর্ডার ব্যাটসম্যান ছিল না। লিটন কুমার দাসের সঙ্গে অনভিজ্ঞ তানজিদ হাসানকে মূল ওপেনার হিসেবে বড় ভরসা রাখা হয়েছে। পরে প্রমাণিত হয়েছে, সেই ভরসা আসলে ছিল তার জন্য প্রবল চাপ।

শুধু ওপেনিংই নয়, গোটা স্কোয়াডেই বাড়তি বিশেষজ্ঞ ব্যাটসম্যান ছিল না। দলকে সেজন্য ভুগতেও হয়েছে বেশ। ম্যাচের পর ম্যাচ তানজিদ ব্যর্থ হলেও তাকে খেলানো হয়েছে অনেকটা বাধ্য হয়েই।

বাড়তি ব্যাটসম্যানের প্রয়োজনীয়তার কথা বিশ্বকাপজুড়েই অস্বীকার করে গেছে দল। বিভিন্ন সংবাদ সম্মেলনে দলের প্রতিনিধি হয়ে যারা এসেছেন, তারা প্রতিবারই বলেছেন এই কথা। এমনকি অধিনায়ক সাকিব তার শেষ সংবাদ সম্মেলনেও বলেছেন, ব্যাটসম্যানদের ওপর তাদের এতটাই বিশ্বাস ছিল যে বিকল্প ব্যাটসম্যান রাখার কথা তারা ভাবেননি।

পুনের মহারাষ্ট্র ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন স্টেডিয়ামে দুই দিন নেটে ব্যাটিং করলেন। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ম্যাচে হয়তো পানি-তোয়ালে টানবেন। প্রয়োজনে ২-১ ওভার ফিল্ডিং করবেন। এর পর অন্যদের সঙ্গে বাড়ির পথ ধরবেন।

২০১৫ বিশ্বকাপে দলের তৃতীয় ম্যাচে ফিল্ডিংয়ে চোট পেয়ে ছিটকে পড়েন। এর পর ২০১৯ বিশ্বকাপে আর সুযোগ পাননি। এবারও স্কোয়াডে ছিলেন না। আর কখনো বিশ্বকাপ খেলতে পারবেন কিনা, সেই সংশয় ছিল। কিন্তু অনেকটা আচমকাই সুযোগ হয়েছিল তার বিশ্বকাপ ক্যারিয়ারে নতুন অধ্যায় যোগ হওয়ার। শেষ পর্যন্ত তা হলো না। এবারের বিশ্বকাপের শেষের যাত্রী হয়ে এসে অনেকটা দর্শক হয়েই রইলেন এনামুল।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Popular Post

বাংলাদেশি it কোম্পানি

বাগেরহাটের মোড়েলগঞ্জে স্বর্ণ ছিনতাই ঘটনায় গ্রেফতার এক

x

কী কারণে দলে ডাক পেলেন এনামুল

Update Time : ১০:১১:৫৮ অপরাহ্ন, শনিবার, ১১ নভেম্বর ২০২৩

স্পোর্টস ডেস্ক:কী কারণে দলে ডাক পেলেন এনামুল? মাত্র এক ম্যাচের জন্য জরুরি বার্তা পেয়ে ওপেনার এনামুল হক বিজয় ভারতে গেলেন। অধিনায়ক সাকিব আল হাসানের বিকল্প হিসেবে বিশ্বকাপে ডাক পান তিনি। কাউকে বিকল্প হিসেবে নিয়ে আসা বা স্কোয়াডে যোগ করা মানেই যে তাকে একাদশে খেলাতে হবে, এমন নয় অবশ্যই। তবে প্রশ্নটিও উঠে যায় অবশ্যই, তা হলে এই শেষ ম্যাচটির আগে এনামুলকে আনা জরুরি ছিল কেন?

প্রশ্নটি আরও বেশি জোরালো হয়, সাকিবের বদলি হিসেবে এনামুলকে আনা হয়েছে বলে।

কোনো ক্রিকেটার চোটের কারণে ছিটকে গেলে তার জায়গায় এমনিতে বদলি কাউকে নেওয়াই রীতি। তবে খুব গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ না হলে স্রেফ একটি ম্যাচের জন্য বদলি অনেক সময় নেওয়া হয় না, বিশেষ করে দল দেশের বাইরে থাকলে। তার পরও যখন সাকিবের বদলি হিসেবে এনামুলকে নেওয়া হলো, একজন অলরাউন্ডারের বদলে আনা হলো টপ অর্ডার ব্যাটসম্যানকে, সে ক্ষেত্রে এই বার্তা পাওয়াই স্বাভাবিক যে এই ব্যাটসম্যানকে দলের একান্ত প্রয়োজন!

সেই প্রয়োজনীয়তার কথা দলের বাইরের অনেকে অনুভব করছিলেন আসলে বিশ্বকাপের আগে থেকেই। ১৫ জনের বিশ্বকাপ স্কোয়াডে কোনো বিকল্প টপঅর্ডার ব্যাটসম্যান ছিল না। লিটন কুমার দাসের সঙ্গে অনভিজ্ঞ তানজিদ হাসানকে মূল ওপেনার হিসেবে বড় ভরসা রাখা হয়েছে। পরে প্রমাণিত হয়েছে, সেই ভরসা আসলে ছিল তার জন্য প্রবল চাপ।

শুধু ওপেনিংই নয়, গোটা স্কোয়াডেই বাড়তি বিশেষজ্ঞ ব্যাটসম্যান ছিল না। দলকে সেজন্য ভুগতেও হয়েছে বেশ। ম্যাচের পর ম্যাচ তানজিদ ব্যর্থ হলেও তাকে খেলানো হয়েছে অনেকটা বাধ্য হয়েই।

বাড়তি ব্যাটসম্যানের প্রয়োজনীয়তার কথা বিশ্বকাপজুড়েই অস্বীকার করে গেছে দল। বিভিন্ন সংবাদ সম্মেলনে দলের প্রতিনিধি হয়ে যারা এসেছেন, তারা প্রতিবারই বলেছেন এই কথা। এমনকি অধিনায়ক সাকিব তার শেষ সংবাদ সম্মেলনেও বলেছেন, ব্যাটসম্যানদের ওপর তাদের এতটাই বিশ্বাস ছিল যে বিকল্প ব্যাটসম্যান রাখার কথা তারা ভাবেননি।

পুনের মহারাষ্ট্র ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন স্টেডিয়ামে দুই দিন নেটে ব্যাটিং করলেন। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ম্যাচে হয়তো পানি-তোয়ালে টানবেন। প্রয়োজনে ২-১ ওভার ফিল্ডিং করবেন। এর পর অন্যদের সঙ্গে বাড়ির পথ ধরবেন।

২০১৫ বিশ্বকাপে দলের তৃতীয় ম্যাচে ফিল্ডিংয়ে চোট পেয়ে ছিটকে পড়েন। এর পর ২০১৯ বিশ্বকাপে আর সুযোগ পাননি। এবারও স্কোয়াডে ছিলেন না। আর কখনো বিশ্বকাপ খেলতে পারবেন কিনা, সেই সংশয় ছিল। কিন্তু অনেকটা আচমকাই সুযোগ হয়েছিল তার বিশ্বকাপ ক্যারিয়ারে নতুন অধ্যায় যোগ হওয়ার। শেষ পর্যন্ত তা হলো না। এবারের বিশ্বকাপের শেষের যাত্রী হয়ে এসে অনেকটা দর্শক হয়েই রইলেন এনামুল।