Add more content here...
Dhaka ০৯:৩৬ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
শিরোনামঃ
লালপুরে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে কলা গাছ কেটেছে দুর্বৃত্তরা বগুড়া সদর উপজেলার এরুলিয়া কাফেলা কোল্ড স্টোরেজ এ মোবাইল কোর্ট অভিযানে অবৈধভাবে ২,১৮,১৭৯ পিছ ডিম উদ্ধার লালপুর উপজেলা নির্বাচনে নব নির্বাচিত হলেন আলহার্জ মোঃ শামিম আহমেদ সাগর বগুড়ার কাহালুতে সুরুজ চেয়ারম্যান ভাইস চেয়ারম্যান মাসুদ মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আছমা বেসরকারি ভাবে নির্বাচিত বোচাগঞ্জে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ঘোড়া প্রতীক নিয়ে মোঃ আফসার আলী নির্বাচিত রাজবাড়ীতে ভোট দিতে এসে ইউসুফ মন্ডল নামের এক ব্যাক্তির মৃত্যু টেকনাফ উপজেলা মানব পাচার সমন্বয় কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে আসন্ন টেকনাফ রামু ও উখিয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রার্থীদের চলছে নির্বাচনী প্রচারণা মানুষের আকর্ষণ তৈরি হয় চারভাবে।শরীর, চেহারা যোগ্যতা আর মন দিয়ে একদিন যোগ্য হবো
নোটিশঃ
প্রিয়" পাঠকগণ", "শুভাকাঙ্ক্ষী" ও প্রতিনিধিদের উদ্দেশ্যে জানানো যাচ্ছে:- কিছুদিন যাবত কিছু প্রতারক চক্র দৈনিক ক্রাইম তালাশ এর নাম ব্যবহার করে প্রতিনিধি নিয়োগ ও বিভিন্ন প্রলোভন দেখিয়ে অর্থ হাতিয়ে নিচ্ছে। তার সাথে একটি সক্রিয় চক্র সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিভিন্ন গ্রুপ বিভিন্ন ভাবে "দৈনিক ক্রাইম তালাশ"কে হেয় প্রতিপন্ন করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। মনে রাখবেন "দৈনিক ক্রাইম তালাশ" এর অফিসিয়াল পেজ বা নিম্নের দুটি নাম্বার ব্যাতিত কোন রকম লেনদেনে জড়াবেন না। মোবাইল: 01867329107 হটলাইন: 01935355252

এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ নৌবাহিনী কলেজ ঢাকা ফটোগ্রাফি সোসাইটি

  • Reporter Name
  • Update Time : ০৬:৪৯:৩৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৩ নভেম্বর ২০২৩
  • ১৮৮ Time View

মোঃ সেলিম হাসানঃঅতীত ও বর্তমানের স্মরণীয় ঘটনাসমূহ তুলে ধরতে ফটোগ্রাফির কোন বিকল্প নেই ।মুখে বুঝিয়ে বলা যখন প্রায় অসম্ভব তখন একটি ফটোগ্রাফই হতে পারে মনের ভাব প্রকাশের অন্যতম মাধ্যম । এ সকল বিষয় বিবেচনা করে প্রত্যেক বছরের শিক্ষার্থীদের কাটানো কিছু বিশেষ মূহুর্ত ও স্মৃতি ধরে রাখতে, আলোকচিত্র বিষয়ে সঠিক জ্ঞান ও শিক্ষা প্রদানের জন্য এবং আলোকচিত্রের মাধ্যমে দেশকে সারা বিশ্বের কাছে উপস্থাপন এর লক্ষ্যে দেশের অন্যতম শিক্ষা প্রতিষ্ঠান নৌবাহিনী কলেজ ঢাকায় ২০১৬ সালের ৩রা আগস্ট আলোকচিত্রী সাজ্জাদুল ইসলাম এর হাত ধরে যথাযথ কর্তৃপক্ষের অনুমতিক্রমে গঠন করা হয় “বাংলাদেশ নৌবাহিনী কলেজ ঢাকা ফটোগ্রাফিক সোসাইটি”। নৌবাহিনী কলেজ ঢাকায় সর্বমোট ১৪টি সহশিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনাকারী সংগঠন বিদ্যমান। উক্ত সংগঠনগুলোর মধ্যে বাংলাদেশ নৌবাহিনী কলেজ ঢাকা ফটোগ্রাফিক সোসাইটি অন্যতম। অষ্টম বর্ষে পদার্পণকারী সংগঠনটি প্রতিবছরই নবাগত শিক্ষার্থীদের ফটোগ্রাফি ছাড়াও গ্রাফিক্স ডিজাইন ও কম্পিউটারগত বিভিন্ন বিষয়ে দক্ষতার সাথে প্রশিক্ষণ প্রদান করে থাকে। সংগঠনটি শিক্ষার্থীদের মধ্যে একতা ও শৃঙ্খলা বজায় রাখার মাধ্যমে প্রতিষ্ঠানের সকল মিডিয়া বিষয়ক কাজ দক্ষতার সাথে সম্পন্ন করে থাকে। এখানে একজন শিক্ষার্থী যেমন নিজের দক্ষতা বিকাশের সুযোগ পাচ্ছে তেমনি প্রতিনিয়ত মানবিক গুনাবলি চর্চার মাধ্যমে নিজেকে একজন প্রকৃত মানুষ হিসেবে গড়ে তুলছে। এছাড়াও শিক্ষার্থীরা ফটোগ্রাফি চর্চার মাধ্যমে শিল্পমনা হয়ে উঠছে। বাংলাদেশ নৌবাহিনী কলেজ ঢাকা ফটোগ্রাফিক সোসাইটির পৃষ্ঠপোষক হিসেবে রয়েছেন অত্র কলেজের অধ্যক্ষ, ক্যাপ্টেন এস এম সালাহউদ্দিন (ট্যাজ), এনজিপি, পিএসসি, বিএন। নিয়ন্ত্রক হিসেবে রয়েছেন কলেজের সহকারী অধ্যাপক মাহবুবুল আলম, সংগঠনটির প্রতিষ্ঠাতা আলোকচিত্রী সাজ্জাদুল ইসলাম বর্তমানে সমন্বয়কারী ও আলোকচিত্র বিষয়ক প্রশিক্ষক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। গ্রাফিক্স ডিজাইন এর প্রশিক্ষক হিসেবে রয়েছেন নাফিস ইকবাল খান। এছাড়া ক্লাব পরিচালনার জন্য রয়েছে স্টুডেন্টস প্যানেল। ক্লাব পরিচালনা পর্ষদ হতে বিভিন্ন পদে শিক্ষার্থীদের দ্বায়িত্ব প্রদান করা হয়ে থাকে। দ্বায়িত্বপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীরা পরবর্তী বছরের নবাগত শিক্ষার্থীদের সমন্বয়ে ক্লাব কার্যক্রম পরিচালনা করে থাকে। নবাগত শিক্ষার্থীদের আদর্শ ফটোগ্রাফার হিসেবে গড়ে তোলার লক্ষ্যে অভিজ্ঞ শিক্ষকমন্ডলী দ্বারা হাতে কলমে প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা হয়। ফটোগ্রাফির ইতিহাস, বেসিক ফটোগ্রাফি, ক্যামেরা ইকুইপমেন্টস সম্পর্কে ধারণা, গ্রাফিক্স ডিজাইনিং, কালার কম্পোজিশন, এডিটিং, কন্টেন্ট রাইটিংসহ নানা কোর্সের ব্যবস্থা রয়েছে এই সংগঠনটিতে। এছাড়া ক্লাস শেষে একজন শিক্ষার্থী কি শিখতে পারলো তা যাচাইয়ের জন্য পরীক্ষারও ব্যবস্থা করা হয়। শুধুমাত্র পরীক্ষায় উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদেরকেই সনদ প্রদান করা হয়ে থাকে। শিক্ষার্থীরা আলোকচিত্রে ব্যবহারিক জ্ঞান প্রদানের জন্য ফটোওয়াকের আয়োজন করা হয়। শিক্ষার্থীরা ফটোওয়াকের মাধ্যমে বাস্তব পরিস্থিতি ও পরিবেশের মাঝে ছবি তুলে আলোকচিত্র গ্রহণে নিজেদের দক্ষতা যাচাই করে। এই সংগঠনে শিক্ষার্থীরা জ্ঞান অর্জনের পাশাপাশি একটি আনন্দময় পরিবেশের মধ্য দিয়ে বেড়ে ওঠে, যাতে সহপাঠীদের মধ্যে সৌহার্দ্যপূর্ণ সম্পর্ক তৈরী হয়। সংগঠনটি প্রতিষ্ঠার পর থেকে সফলভাবে জাতীয় পর্যায়ে তিনটি আলোকচিত্র প্রতিযোগিতা ও প্রদর্শনীর আয়োজন করেছে। যেখানে সারাদেশের সকল স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করতে পারে। জাতীয় পর্যায়ের আলোকচিত্র প্রতিযোগিতায় দেশের বিভিন্ন প্রান্ত হতে স্কুল কলেজ পড়ুয়া শিক্ষার্থীরা আলোচিত্র প্রেরণ করে থাকে, যা শিক্ষার্থীদের সুপ্ত প্রতিভা প্রকাশে সহযোগিতা করে। প্রতিযোগিতায় বাছাইকৃত ছবি প্রদর্শনের ব্যবস্থা করা হয়। উক্ত প্রদর্শনী সর্বসাধারণের জন্য উন্মুক্ত থাকে। ফলে সকলেই প্রদর্শীত আলোকচিত্রের মাধ্যমে শিল্পীর মনের ভাব বোঝার সুযোগ পায়। প্রদর্শনী শেষে বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার তুলে দেন আমন্ত্রণকৃত অতিথিগণ। এছাড়া মনোমুগ্ধকর সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে মুখরিত করা হয় সমাপনী আয়োজন। করোনাকালীন সময়ে যখন সকলে গৃহবন্দি, বন্দিদশার একঘেয়েমি কাটানোর জন্য অনলাইনে জাতীয় পর্যায়ে দুটি আলোকচিত্র প্রতিযোগিতা ও প্রদর্শনীর আয়োজন করে বিএনসিডিপিএস। এছাড়াও বিভিন্ন দিবস উপলক্ষে আন্তঃ কলেজ আলোকচিত্র প্রতিযোগিতার আয়োজন করে থাকে সংগঠনটি, যেখানে নৌবাহিনী কলেজ ঢাকার শিক্ষার্থীরা আলোকচিত্র গ্রহণে নিজেদের দক্ষতার পরিচয় দেয়। নৌবাহিনী কলেজ ঢাকা হতে প্রতিমাসে শিক্ষার্থীদের মাঝে সেরা আলোকচিত্রীদের পুরস্কৃত করা হয়। কলেজ কর্তৃক প্রকাশিত ম্যাগাজিনে শিক্ষার্থীদের ধারণকৃত আলোকচিত্রগুলো তুলে ধরা হয় যা শিক্ষার্থীদের মাঝে অনুপ্রেরণা যোগায়। শুধুমাত্র পড়াশুনাই নয় পড়াশোনার পাশাপাশি সহশিক্ষার কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করলে একজন শিক্ষার্থী প্রকৃত

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Popular Post

বাংলাদেশি it কোম্পানি

লালপুরে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে কলা গাছ কেটেছে দুর্বৃত্তরা

x

এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ নৌবাহিনী কলেজ ঢাকা ফটোগ্রাফি সোসাইটি

Update Time : ০৬:৪৯:৩৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৩ নভেম্বর ২০২৩

মোঃ সেলিম হাসানঃঅতীত ও বর্তমানের স্মরণীয় ঘটনাসমূহ তুলে ধরতে ফটোগ্রাফির কোন বিকল্প নেই ।মুখে বুঝিয়ে বলা যখন প্রায় অসম্ভব তখন একটি ফটোগ্রাফই হতে পারে মনের ভাব প্রকাশের অন্যতম মাধ্যম । এ সকল বিষয় বিবেচনা করে প্রত্যেক বছরের শিক্ষার্থীদের কাটানো কিছু বিশেষ মূহুর্ত ও স্মৃতি ধরে রাখতে, আলোকচিত্র বিষয়ে সঠিক জ্ঞান ও শিক্ষা প্রদানের জন্য এবং আলোকচিত্রের মাধ্যমে দেশকে সারা বিশ্বের কাছে উপস্থাপন এর লক্ষ্যে দেশের অন্যতম শিক্ষা প্রতিষ্ঠান নৌবাহিনী কলেজ ঢাকায় ২০১৬ সালের ৩রা আগস্ট আলোকচিত্রী সাজ্জাদুল ইসলাম এর হাত ধরে যথাযথ কর্তৃপক্ষের অনুমতিক্রমে গঠন করা হয় “বাংলাদেশ নৌবাহিনী কলেজ ঢাকা ফটোগ্রাফিক সোসাইটি”। নৌবাহিনী কলেজ ঢাকায় সর্বমোট ১৪টি সহশিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনাকারী সংগঠন বিদ্যমান। উক্ত সংগঠনগুলোর মধ্যে বাংলাদেশ নৌবাহিনী কলেজ ঢাকা ফটোগ্রাফিক সোসাইটি অন্যতম। অষ্টম বর্ষে পদার্পণকারী সংগঠনটি প্রতিবছরই নবাগত শিক্ষার্থীদের ফটোগ্রাফি ছাড়াও গ্রাফিক্স ডিজাইন ও কম্পিউটারগত বিভিন্ন বিষয়ে দক্ষতার সাথে প্রশিক্ষণ প্রদান করে থাকে। সংগঠনটি শিক্ষার্থীদের মধ্যে একতা ও শৃঙ্খলা বজায় রাখার মাধ্যমে প্রতিষ্ঠানের সকল মিডিয়া বিষয়ক কাজ দক্ষতার সাথে সম্পন্ন করে থাকে। এখানে একজন শিক্ষার্থী যেমন নিজের দক্ষতা বিকাশের সুযোগ পাচ্ছে তেমনি প্রতিনিয়ত মানবিক গুনাবলি চর্চার মাধ্যমে নিজেকে একজন প্রকৃত মানুষ হিসেবে গড়ে তুলছে। এছাড়াও শিক্ষার্থীরা ফটোগ্রাফি চর্চার মাধ্যমে শিল্পমনা হয়ে উঠছে। বাংলাদেশ নৌবাহিনী কলেজ ঢাকা ফটোগ্রাফিক সোসাইটির পৃষ্ঠপোষক হিসেবে রয়েছেন অত্র কলেজের অধ্যক্ষ, ক্যাপ্টেন এস এম সালাহউদ্দিন (ট্যাজ), এনজিপি, পিএসসি, বিএন। নিয়ন্ত্রক হিসেবে রয়েছেন কলেজের সহকারী অধ্যাপক মাহবুবুল আলম, সংগঠনটির প্রতিষ্ঠাতা আলোকচিত্রী সাজ্জাদুল ইসলাম বর্তমানে সমন্বয়কারী ও আলোকচিত্র বিষয়ক প্রশিক্ষক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। গ্রাফিক্স ডিজাইন এর প্রশিক্ষক হিসেবে রয়েছেন নাফিস ইকবাল খান। এছাড়া ক্লাব পরিচালনার জন্য রয়েছে স্টুডেন্টস প্যানেল। ক্লাব পরিচালনা পর্ষদ হতে বিভিন্ন পদে শিক্ষার্থীদের দ্বায়িত্ব প্রদান করা হয়ে থাকে। দ্বায়িত্বপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীরা পরবর্তী বছরের নবাগত শিক্ষার্থীদের সমন্বয়ে ক্লাব কার্যক্রম পরিচালনা করে থাকে। নবাগত শিক্ষার্থীদের আদর্শ ফটোগ্রাফার হিসেবে গড়ে তোলার লক্ষ্যে অভিজ্ঞ শিক্ষকমন্ডলী দ্বারা হাতে কলমে প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা হয়। ফটোগ্রাফির ইতিহাস, বেসিক ফটোগ্রাফি, ক্যামেরা ইকুইপমেন্টস সম্পর্কে ধারণা, গ্রাফিক্স ডিজাইনিং, কালার কম্পোজিশন, এডিটিং, কন্টেন্ট রাইটিংসহ নানা কোর্সের ব্যবস্থা রয়েছে এই সংগঠনটিতে। এছাড়া ক্লাস শেষে একজন শিক্ষার্থী কি শিখতে পারলো তা যাচাইয়ের জন্য পরীক্ষারও ব্যবস্থা করা হয়। শুধুমাত্র পরীক্ষায় উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদেরকেই সনদ প্রদান করা হয়ে থাকে। শিক্ষার্থীরা আলোকচিত্রে ব্যবহারিক জ্ঞান প্রদানের জন্য ফটোওয়াকের আয়োজন করা হয়। শিক্ষার্থীরা ফটোওয়াকের মাধ্যমে বাস্তব পরিস্থিতি ও পরিবেশের মাঝে ছবি তুলে আলোকচিত্র গ্রহণে নিজেদের দক্ষতা যাচাই করে। এই সংগঠনে শিক্ষার্থীরা জ্ঞান অর্জনের পাশাপাশি একটি আনন্দময় পরিবেশের মধ্য দিয়ে বেড়ে ওঠে, যাতে সহপাঠীদের মধ্যে সৌহার্দ্যপূর্ণ সম্পর্ক তৈরী হয়। সংগঠনটি প্রতিষ্ঠার পর থেকে সফলভাবে জাতীয় পর্যায়ে তিনটি আলোকচিত্র প্রতিযোগিতা ও প্রদর্শনীর আয়োজন করেছে। যেখানে সারাদেশের সকল স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করতে পারে। জাতীয় পর্যায়ের আলোকচিত্র প্রতিযোগিতায় দেশের বিভিন্ন প্রান্ত হতে স্কুল কলেজ পড়ুয়া শিক্ষার্থীরা আলোচিত্র প্রেরণ করে থাকে, যা শিক্ষার্থীদের সুপ্ত প্রতিভা প্রকাশে সহযোগিতা করে। প্রতিযোগিতায় বাছাইকৃত ছবি প্রদর্শনের ব্যবস্থা করা হয়। উক্ত প্রদর্শনী সর্বসাধারণের জন্য উন্মুক্ত থাকে। ফলে সকলেই প্রদর্শীত আলোকচিত্রের মাধ্যমে শিল্পীর মনের ভাব বোঝার সুযোগ পায়। প্রদর্শনী শেষে বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার তুলে দেন আমন্ত্রণকৃত অতিথিগণ। এছাড়া মনোমুগ্ধকর সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে মুখরিত করা হয় সমাপনী আয়োজন। করোনাকালীন সময়ে যখন সকলে গৃহবন্দি, বন্দিদশার একঘেয়েমি কাটানোর জন্য অনলাইনে জাতীয় পর্যায়ে দুটি আলোকচিত্র প্রতিযোগিতা ও প্রদর্শনীর আয়োজন করে বিএনসিডিপিএস। এছাড়াও বিভিন্ন দিবস উপলক্ষে আন্তঃ কলেজ আলোকচিত্র প্রতিযোগিতার আয়োজন করে থাকে সংগঠনটি, যেখানে নৌবাহিনী কলেজ ঢাকার শিক্ষার্থীরা আলোকচিত্র গ্রহণে নিজেদের দক্ষতার পরিচয় দেয়। নৌবাহিনী কলেজ ঢাকা হতে প্রতিমাসে শিক্ষার্থীদের মাঝে সেরা আলোকচিত্রীদের পুরস্কৃত করা হয়। কলেজ কর্তৃক প্রকাশিত ম্যাগাজিনে শিক্ষার্থীদের ধারণকৃত আলোকচিত্রগুলো তুলে ধরা হয় যা শিক্ষার্থীদের মাঝে অনুপ্রেরণা যোগায়। শুধুমাত্র পড়াশুনাই নয় পড়াশোনার পাশাপাশি সহশিক্ষার কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করলে একজন শিক্ষার্থী প্রকৃত