Add more content here...
Dhaka ০১:৩২ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ২৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
শিরোনামঃ
নবীগঞ্জ থানায় ৩টি সাজায় ওয়ারেন্টে মোট ছয় বছরের সাজাপ্রাপ্ত আসামি গ্রেফতার আজ তৃতীয় দিনের মতো কোটা সংস্কারের দাবিতে (রাবি) শিক্ষার্থীদের রেললাইন অবরোধ বগুড়ার কাহালুতে নিরাপদ সড়ক চাই কমিটির উদ্যোগে অসহায় প্রতিবন্ধী লিটন কে হুইলে চেয়ার প্রদান ভালো নেই আদিতমারীর মহিষখোচা ইউনিয়নের হরিজন সম্প্রদায়ের লোকেরা বগুড়ায় ট্রাক ও সিএনজি মুখোমুখি সংঘর্ষে চালক সহ নিহত ৪জন আহত ২ লালমনিরহাট জেলার আদিতমারী উপজেলায় বীমা কোম্পানির আড়ালে জমজমাট দেহ ব্যবসা লালপুরে উপজেলায় বিদ্যুতায়িত হয়ে গৃহবধূর মৃত্যু বগুড়ার আদমদীঘিতে জামাইয়ের হাতে শাশুড়ি খুন ভোলায় সপ্তাহব্যাপী বৃক্ষ মেলার উদ্বোধন রৌমারীতে সাবেক প্রতিমন্ত্রী জাকির হোসেন এর বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন
নোটিশঃ
প্রিয়" পাঠকগণ", "শুভাকাঙ্ক্ষী" ও প্রতিনিধিদের উদ্দেশ্যে জানানো যাচ্ছে:- কিছুদিন যাবত কিছু প্রতারক চক্র দৈনিক ক্রাইম তালাশ এর নাম ব্যবহার করে প্রতিনিধি নিয়োগ ও বিভিন্ন প্রলোভন দেখিয়ে অর্থ হাতিয়ে নিচ্ছে। তার সাথে একটি সক্রিয় চক্র সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিভিন্ন গ্রুপ বিভিন্ন ভাবে "দৈনিক ক্রাইম তালাশ"কে হেয় প্রতিপন্ন করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। মনে রাখবেন "দৈনিক ক্রাইম তালাশ" এর অফিসিয়াল পেজ বা নিম্নের দুটি নাম্বার ব্যাতিত কোন রকম লেনদেনে জড়াবেন না। মোবাইল: 01867329107 হটলাইন: 01935355252

চন্দনাইশে পেঁপে চাষ করে ভাগ্যবদল মোঃ ইউনুসফের

  • Reporter Name
  • Update Time : ০৩:৩৮:১৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৩ অক্টোবর ২০২৩
  • ১৬২ Time View

মোঃআমিন উল্লাহ টিপু,চন্দনাইশ প্রতিনিধি:
চট্টগ্রামের চন্দনাইশ পতিত জমিতে শখের বসে পৃথকভাবে , শাহী, জাতের পেঁপে চাষ করে সচ্ছলতা এনেছেন মোঃইউসুফ, । সামাজিক ও অর্থনৈতিকভাবে হয়ে উঠেছেন স্বাবলম্বী।
সরোজমিনে দেখাগেছে, উপজেলার হাশিমপুর ইউনিয়নের গোদারকুল এলাকায়র , গ্রামের চাষি মোঃইউসুফ পেঁপে চাষে সফল হয়েছেন।

প্রান্তিক এই চাষি জানান, বিগত বছরের তুলনায় এবছর ব্যপক পেঁপের ফলন পেয়েছেন। পেঁপে বিক্রি করে গত বছর তুলনা এই বছর মুনাফাও করেছেন কয়েকগুন। প্রত্যেকেই পৃথকভাবে প্রায় প্রতি মাসে পেঁপে বিক্রি করে লাভ পাচ্ছেন ১ লক্ষ ৫০ হাজার টাকার মতো। ফল ও সবজি হিসেবে পেঁপে বেশ জনপ্রিয়। শুধু পরিবারের চাহিদা মেটানোর জন্য একসময় বাড়ির আঙিনায় চাষ করা হতো ফলটি। বর্তমানে তারা বাণিজ্যিকভাবে পেঁপে চাষে চমক সৃষ্টি করেছেন। প্রতি মণ সময় ভেদে ১৮’শ থেকে প্রায় ২ হাজার টাকা পর্যন্ত বিক্রি করেছেন এ পেপেঁ ।
এব্যপারে চন্দনাইশ উপজেলার হাশিমপুর ইউনিয়নের গোদারকুল গ্রামের মোঃইউসুফ জানান, এবছর আরো ২’শ মণ পেঁপে বিক্রি করতে পারবেন তিনি। তার বাগানে শাহী, জাতের ১ বিগা পূর্ণবয়স্ক পেঁপে গাছ রয়েছে। প্রতিটা পেঁপে গাছে প্রায় ৫-৭ মণ পেঁপে ধরে। বর্তমানে এক বিগা জমির পাড়ে সারি সারি পেঁপে গাছ শোভা পাচ্ছে। প্রতিটি গাছের গোরা থেকে মাথা পর্যন্ত ঝুলে আছে অসংখ্য পেঁপে। তিনি সর্বোচ্চ সাড়ে ৮ কেজি ওজনের পেঁপে সংগ্রহ করছেন।
ইউসুফ আরো জানান, বর্তমানে তিনি এলাকার (মসজিদ, মাদ্রাসা, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান) বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের আঙ্গিনায় ফ্রি পেঁপে চারা লাগিয়ে বৃক্ষরোপণে উদ্বুদ্ধ করার চেষ্টা করছেন। নিজের ফলানো পেঁপে বিনামূল্যে সবজি হিসেবে এলাকার একটি এতিমখানায় দিয়ে থাকেন তিনি।
এ বিষয়ে চন্দনাইশ উপজেলা কৃষি অফিসার মোঃআজাদ হোসেন বলেন, উপজেলার প্রায় পেঁপে বাগানে দেখভাল করার জন্য গিয়েছি। এসব প্রান্তিক চাষিরা খুব কর্মঠ মানুষ। এরা প্রায় প্রত্যেকেই উপজেলায় পেঁপে চাষ করে চমক দেখিয়েছেন।

এসব কৃষকেরা আর্থিকভাবে অনেকটা লাভবান। বর্তমানে এই কৃষককে দেখে জেলার অনেকেই পেঁপে চাষে উৎসাহী হয়ে উঠেছেন।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Popular Post

বাংলাদেশি it কোম্পানি

নবীগঞ্জ থানায় ৩টি সাজায় ওয়ারেন্টে মোট ছয় বছরের সাজাপ্রাপ্ত আসামি গ্রেফতার

x

চন্দনাইশে পেঁপে চাষ করে ভাগ্যবদল মোঃ ইউনুসফের

Update Time : ০৩:৩৮:১৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৩ অক্টোবর ২০২৩

মোঃআমিন উল্লাহ টিপু,চন্দনাইশ প্রতিনিধি:
চট্টগ্রামের চন্দনাইশ পতিত জমিতে শখের বসে পৃথকভাবে , শাহী, জাতের পেঁপে চাষ করে সচ্ছলতা এনেছেন মোঃইউসুফ, । সামাজিক ও অর্থনৈতিকভাবে হয়ে উঠেছেন স্বাবলম্বী।
সরোজমিনে দেখাগেছে, উপজেলার হাশিমপুর ইউনিয়নের গোদারকুল এলাকায়র , গ্রামের চাষি মোঃইউসুফ পেঁপে চাষে সফল হয়েছেন।

প্রান্তিক এই চাষি জানান, বিগত বছরের তুলনায় এবছর ব্যপক পেঁপের ফলন পেয়েছেন। পেঁপে বিক্রি করে গত বছর তুলনা এই বছর মুনাফাও করেছেন কয়েকগুন। প্রত্যেকেই পৃথকভাবে প্রায় প্রতি মাসে পেঁপে বিক্রি করে লাভ পাচ্ছেন ১ লক্ষ ৫০ হাজার টাকার মতো। ফল ও সবজি হিসেবে পেঁপে বেশ জনপ্রিয়। শুধু পরিবারের চাহিদা মেটানোর জন্য একসময় বাড়ির আঙিনায় চাষ করা হতো ফলটি। বর্তমানে তারা বাণিজ্যিকভাবে পেঁপে চাষে চমক সৃষ্টি করেছেন। প্রতি মণ সময় ভেদে ১৮’শ থেকে প্রায় ২ হাজার টাকা পর্যন্ত বিক্রি করেছেন এ পেপেঁ ।
এব্যপারে চন্দনাইশ উপজেলার হাশিমপুর ইউনিয়নের গোদারকুল গ্রামের মোঃইউসুফ জানান, এবছর আরো ২’শ মণ পেঁপে বিক্রি করতে পারবেন তিনি। তার বাগানে শাহী, জাতের ১ বিগা পূর্ণবয়স্ক পেঁপে গাছ রয়েছে। প্রতিটা পেঁপে গাছে প্রায় ৫-৭ মণ পেঁপে ধরে। বর্তমানে এক বিগা জমির পাড়ে সারি সারি পেঁপে গাছ শোভা পাচ্ছে। প্রতিটি গাছের গোরা থেকে মাথা পর্যন্ত ঝুলে আছে অসংখ্য পেঁপে। তিনি সর্বোচ্চ সাড়ে ৮ কেজি ওজনের পেঁপে সংগ্রহ করছেন।
ইউসুফ আরো জানান, বর্তমানে তিনি এলাকার (মসজিদ, মাদ্রাসা, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান) বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের আঙ্গিনায় ফ্রি পেঁপে চারা লাগিয়ে বৃক্ষরোপণে উদ্বুদ্ধ করার চেষ্টা করছেন। নিজের ফলানো পেঁপে বিনামূল্যে সবজি হিসেবে এলাকার একটি এতিমখানায় দিয়ে থাকেন তিনি।
এ বিষয়ে চন্দনাইশ উপজেলা কৃষি অফিসার মোঃআজাদ হোসেন বলেন, উপজেলার প্রায় পেঁপে বাগানে দেখভাল করার জন্য গিয়েছি। এসব প্রান্তিক চাষিরা খুব কর্মঠ মানুষ। এরা প্রায় প্রত্যেকেই উপজেলায় পেঁপে চাষ করে চমক দেখিয়েছেন।

এসব কৃষকেরা আর্থিকভাবে অনেকটা লাভবান। বর্তমানে এই কৃষককে দেখে জেলার অনেকেই পেঁপে চাষে উৎসাহী হয়ে উঠেছেন।